Home / কর্ম ও জীবন / পিতা পুত্র ও গাধার গল্প যা আপনার জীবনের দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে দিবে
পিতা-পুত্র-গাধা

পিতা পুত্র ও গাধার গল্প যা আপনার জীবনের দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে দিবে

………এক লোক আর তার কিশোর ছেলে একটি গাধা নিয়ে রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিল।
গাধা’টি এত শক্তিশালী ছিলনা যে, দুজন একসাথে গাধা’র পিঠে উঠতে পারে। তাই লোকটি তার কিশোর ছেলেকে গাধার পিঠে বসিয়ে দিয়ে নিজে হেঁটে যেতে লাগল। খানিক’টা পথ যেতেই কিছু মানুষ এ দৃশ্য দেখে বলল, ছেলে’টা কত বেয়াদব, বাবা’কে বসতে না দিয়ে নিজে গাধা’র পিঠে উঠেছে। এ কথা শুনে ছেলে’টি গাধা’র পিঠ থেকে নেমে গিয়ে বাবা’কে বসতে দিল।

এভাবে আরেকটু সামনে যেতে যেতেই আবারও কিছু মানুষের দেখা মিলল। মানুষগুলো এ দৃশ্য দেখে বলল, এটা কেমন বাবা? ছোট্ট ছেলেকে হাঁটাচ্ছে, আর নিজে আরামে গাধা’র পিঠে উঠেছে! এ কথা শুনে লোক’টি তার ছেলে’কে গাধা’র পিঠে উঠিয়ে, দু’জনে একসাথে চলতে লাগল।

এভাবে আরেকটু সামনে যেতে যেতেই আবারও কিছু মানুষের দেখা মিলল। মানুষগুলো এ দৃশ্য দেখে বলতে থাকল, এরা কতবড় জালিম! এতটুকু একটা দূর্বল গাধার পিঠে দু’টো মানুষ চড়ে বসেছে! তখন দু’জনেই গাধার পিঠ থেকে নেমে গেল এবং দু’জনেই গাধার সাথে সাথে হাঁটতে লাগল।

এভাবে আরেকটু সামনে যেতে যেতেই আবারও কিছু মানুষের দেখা মিলল। মানুষগুলো এ দৃশ্য দেখে বলতে থাকল, এদের মাথায় বুদ্ধি কম। তা না হলে গাধা’র সাথে সাথে এরাও হাঁটে নাকি? গাধার পিঠে উঠলেই তো পারে! লোক’টি ও তার ছেলে চিন্তা করতে লাগল কি করা যায়! যা করি তাতেই তো মানুষ সমালোচনা করে। তারা কিংকর্তব্যবিমূড় হয়ে পড়ল।

বাপ-ছেলে মিলে একটি অভিনব উপায় বের করল। তারা গাধার পা গুলো বেঁধে ফেলল এবং একটি শক্ত বাঁশ গাধার দু’পায়ের ভিতর দিয়ে ঢুঁকিয়ে দিয়ে, নিজেদের ঘাড়ে বাঁশ রেখে নিশ্চিন্তে গাধাকে ঝুলিয়ে ঝুলিয়ে নিয়ে যেতে লাগল। আর ভাবতে লাগল এবার আর কারো কিচ্ছু বলার নেই!

এভাবে আরেকটু সামনে যেতে যেতেই আবারও কিছু মানুষের দেখা মিলল। মানুষগুলো এ দৃশ্য দেখে বলল, এরা গাধার চাইতেও বড় গাধা।

উপলব্ধিঃ এ গল্প থেকে আমরা বুঝতে পারি, আপনি যখন কোন কাজ শুরু করবেন, আপনার আশেপাশের মানুষগুলো আপনার কোন উপকার করতে না পারলেও, অপ্রয়োজনে আপনাকে এবং আপনার কাজ নিয়ে সমালোচনা করবে, ঠাট্টা করবে, বিভ্রান্ত করে তুলবে এবং ভুল পথে পরিচালিত করবে।

শিক্ষাঃ কারও সমালোচনায়, ঠাট্টা-বিদ্রুপে কান না দিয়ে, আপনাকে আপনার পরিকল্পনা অনুযায়ী মনোযোগ দিয়ে কাজ করে যেতে হবে। অন্যথায় নিজের কাজে তো ব্যর্থ হবেনই। পাশাপাশি সবার কাছে তামাশার পাত্রেও পরিনত হবেন।

Related Post

ফেসবুক আইডি থেকে মন্তব্য করতে পারেন

টি মন্তব্য