মূল পাতা / স্বাস্থ্য / চিনিছাড়া ব্ল্যাক কফির ৭ স্বাস্থ্যগুণ!

চিনিছাড়া ব্ল্যাক কফির ৭ স্বাস্থ্যগুণ!

অনেকে ব্ল্যাক কফি পছন্দ করেন। কারও কারও আবার ধারণা ব্ল্যাক কফি স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। কিন্তু এই ধারণাটি ভুল। বিশেষজ্ঞদের মতে, দিনে অন্তত দু’বার চিনি ছাড়া কফি খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপাকারী। সকালে ব্রেকফাস্টের পরে এক কাপ এবং সন্ধ্যাবেলায় এক কাপ কফি খাওয়া যেতে পারে। এক কাপ কফিতে ৬০% পুষ্টি, ২০% ভিটামিন এবং ১০% খনিজ ও ক্যালরি আছে। যা হৃদযন্ত্রসহ দেহের অন্যান্য অংশের উপকার করে থাকে। তবে তা অব্যশই চিনি ছাড়া হতে হবে।
১। স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি

ব্ল্যাক কফি মস্তিষ্ককে সচল রাখতে সাহায্য করে। যার ফলে মনে রাখার ক্ষমতা অনেকখানি বেড়ে যায়। এছাড়া এটি নার্ভকেও সচল রাখে।
২। ডায়াবেটিসের ঝুঁকি হ্রাস করে

কফির উপাদানসমূহ ব্লাড সুগার কমিয়ে দেয় এবং মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে থাকে। যা ডায়াবেটিসের ঝুঁকি হ্রাস করে। নিয়মিত কফি পানে ৭% ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করে থাকে।
৩। পেট পরিষ্কার করতে

কফি খেলে ঘন ঘন প্রসাব হয়। চিনি ছাড়া কফি খেলে শরীরের ক্ষতিকর বিষাক্ত পদার্থ, ব্যাকটেরিয়া প্রসাবের সাথে শরীর থেকে বের হয়ে যায়। যা পেট পরিষ্কার করে থাকে।
৪। ওজন হ্রাস করতে

ব্ল্যাক কফি ওজন হ্রাস করতে সাহায্য করে থাকে। এটি মেটাবলিজম ৫০% বাড়িয়ে দেয় এবং এর সাথে পেটে জমে থাকা চর্বি গলাতে সাহায্য করে।
৫। ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস করে

এক সমীক্ষায় দেখা গেছে ব্ল্যাক কফি ২০% পুরুষের ক্যান্সার এবং ২৫% মেয়েদের ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি হ্রাস করে থাকে। যারা প্রতিদিন চার কাপ কফি পান করে তাদের ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায়।
৬। হার্ট সুস্থ রাখে

ব্ল্যাক কফি দেহের ইনফ্লামেশন কমিয়ে হৃদরোগ হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস করে থাকে। চিনি ছাড়া ব্ল্যাক কফি হার্ট সুস্থ রাখে।
৭। হাসিখুশি রাখে

এক কাপ ব্ল্যাক কফি সাথে সাথে আপনার মুড ভাল করে দেয়। ক্যাফিন নার্ভ সিস্টেমকে প্রভাবিত করে আপনার মনকে খুশি করে দেয়।

লেখাটি ভাললাগলে কিংবা উপকারে আসলে শেয়ার করে অপরকে জানান।

ফেসবুক আইডি থেকে মন্তব্য করতে পারেন

টি মন্তব্য

পছন্দের আরেকটি লেখা

বন্ধ্যত্ব সমস্যার পরামর্শ ও টেস্টটিউব বেবির রহস্য (ভিডিও সহ)

বর্তমানে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে ইনফারটিলিটি বা বন্ধ্যত্বের সমস্যা বেড়ে যাচ্ছে। বন্ধ্যত্ব কেন হয়, এর প্রতিকারই …