Home / জনসচেতনতা / সুস্থভাবে দীর্ঘ সময় জীবন পেতে গড়ে নিন ছয় অভ্যাস

সুস্থভাবে দীর্ঘ সময় জীবন পেতে গড়ে নিন ছয় অভ্যাস

প্রবাদ আছে, স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল। স্বাস্থ্য ভালো না থাকলে সবকিছুই অনর্থক মনে হয়। তবে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হওয়া এতটা সহজ নয়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কয়েকটি বিষয় ঠিকঠাকমতো মেনে চললে এবং অভ্যাসে পরিণত করলে স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন করা সম্ভব। স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট মাইন্ড বডি গ্রিন জানিয়েছে এ বিষয়ে কিছু পরামর্শ।

১. ঘুম

সুস্বাস্থ্যের প্রথম শর্ত নিয়মিত ঘুম। ভালোভাবে ঘুমানোর বিকল্প কিছু হতে পারে না। ঘুম শরীর ও মন ভালো থাকার জন্য জরুরি। দিনের সমস্ত শারীরিক ও মানসিক ক্লান্তি কাটিয়ে পরের দিনটিতে নিজেকে প্রাণবন্তভাবে ফিরে পেতে ভালো ঘুম প্রয়োজন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, প্রতিটি সুস্থ মানুষের রাতে অন্তত সাত থেকে নয় ঘণ্টা ঘুমানো প্রয়োজন। ঘুমের সমস্যা আপনাকে ক্লান্ত করে দেবে এবং কর্মক্ষমতা কমিয়ে দেবে। তাই ভালো করে ঘুমান।

২. শ্বাস

শ্বাস না নিয়ে তো আর থাকা যায় না। বেঁচে থাকার জন্য শ্বাস নেওয়ার কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু এই শ্বাস নেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু ব্যাপার আছে। যেমন কেউ যদি খুব ঘনঘন শ্বাস নেয় এবং বাতাস যদি ফুসফুসে ভালো করেই না পৌঁছায় তাহলে একে বলা যায় ত্রুটিপূর্ণ শ্বাস গ্রহণ। তাই পরিপূর্ণ শ্বাস গ্রহণের মাধ্যমে ফুসফুস ও দেহের ভেতর সঠিক পরিমাণ অক্সিজেন প্রবেশ করালে তা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। কারণ এতে রক্তকণিকাগুলো সঠিক পরিমাণে অক্সিজেন পাবে এবং তাতে মানসিক চাপ কমে বলে মনে করেন অনেক বিশেষজ্ঞ।

৩. পানি পান করুন

শরীরের জন্য পানি অপরিহার্য একটি উপাদান। ওজন বৃদ্ধি, ঘুমের সমস্যা, মাথাব্যথা, অবসাদ-এসবের কোনোটিতে যদি আপনি ভোগেন তবে প্রথমেই যে কাজটি প্রয়োজন সেটা হলো প্রচুর পানি পান করা। তবে কতটুকু? বিশেষজ্ঞদের মতে, একজন সুস্থ মানুষ দুই থেকে তিন লিটার পানি প্রতিদিন পান করতে পারেন।

৪. খাবার খান, তবে বেশি নয়

খাবার খান, তবে বেশি নয়। এই কথাটি হয়তো বহুবার শুনে বা পড়ে থাকবেন। আমরা জানি অতিরিক্ত খাওয়া শারীরিক এবং মানসিক কার্যক্রমকে ব্যাহত করতে পারে। গবেষকরা বলেন, বারবার খান কিন্তু অল্প অল্প করে খান। আর শাকসবজি বেশি খান। প্রক্রিয়াজাত বা প্যাকেটজাত খাবার এড়িয়ে চলুন। তরতাজা ফল ও সবজি খাওয়ার চেষ্টা করুন। শিম, মটরশুটি, বাদাম, মাছ, মুরগির মাংস খান।

৫. নড়াচড়া

যদি আমরা নড়াচড়া না করতাম তবে জড়ো হয়ে যেতাম; আর দ্রুতই মৃত্যু ঘটত। তাই হাঁটুন, লাফান, নাচুন, খেলুন, সাইকেল চালান, দৌড়ান, ইয়োগা বা অ্যারোবিকস চর্চা করুন। মূল কথা দেহকে সচল রাখুন। স্বাস্থ্যকর জীবনের এটা বড় সূত্র।

৬. সূর্যের আলোয় যান

ঘরের বাইরে বের হোন, সূর্যের আলোয় যান। তবে এটা একটু বিতর্কিত। একদল বলেন, সূর্যের রশ্মিতে বেশিক্ষণ থাকলে ত্বক পুড়ে যেতে পারে। শুধু তাই নয়, সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির কারণে ত্বকে ক্যানসারও হতে পারে বলে মত অনেকের। আবার অপর পক্ষ বলেন, রোদের কাছে না গেলে দেহের সবকিছু ক্ষয় হতে থাকে।

সূর্যের আলো থেকে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়। যা যেকোনো সাপ্লিমেন্ট থেকে অনেক ভালো। এটি রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়ায় এবং হাড়কে সবল রাখে। মানসিক এবং শারীরিক সুস্থতার জন্য এটি প্রয়োজন।

বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, তাই সূর্যের আলোকেও পরিমিতভাবে গ্রহণ করুন। কিছুক্ষণ হলেও সূর্যের কাছে যান।

সুস্থভাবে দীর্ঘ সময় জীবনযাপন করলে নিয়মিত এই ছয়টি বিষয়ের অভ্যাস করুন। জীবনে পরিবর্তন আসবে।

তথ্য সুত্রঃ এনটিভি

ফেসবুক আইডি থেকে মন্তব্য করতে পারেন

টি মন্তব্য