Home / খাবার ও রেসিপি / লালমোহন মিষ্টি তৈরী করুন নিজের ঘরে খুব সহজে

লালমোহন মিষ্টি তৈরী করুন নিজের ঘরে খুব সহজে

lalmohonআমরা তো সাধারনত মিষ্টি দোকান থেকেই কিনে খাই। কিন্তু চাইলে আমরা খুব সহজেই ঘরে বসে মিষ্টি তৈরী করতে পারি। আজ আমরা মাঝারি সাইজের ৮ থেকে ১০ টি লালমোহন তৈরী করব। যদি আপনারা বেশি পরিমান লালমোহন তৈরী করতে চান তবে, অনুপাত ঠিক রেখে উপকরণের পরিমান বাড়িয়ে নিবেন। তো আর কথা না বাড়িয়ে আসুন জেনে নিই কিভাবে লালমোহন তৈরী করতে হয়।

প্রয়োজনীয় উপকরণঃ
১) ময়দা আধা কাপ
২) ডিম ১টি
৩) চিনি ১ কাপ (সিরা তৈরীর জন্য) এবং ময়ানে জন্য অতিরিক্ত ১ চা-চামচ
৪) গুড়া দুধ ১ কাপের ৪ ভাগের ৩ ভাগ
৫) বেকিং পাউডার ২ চা-চামচ
৬) সয়াবিন তেল (ময়ানের জন্য ২ চা-চামচ) এবং মিষ্টি ভাঁজার জন্য পরিমান মত
৭) পানি ২ কাপ (সিরার জন্য) এবং ১ চা-চামচ ময়ানের জন্য

তৈরীর প্রক্রিয়াঃ
প্রথমে আমাদের সিরা তৈরী করতে হবে। সিরা তৈরী করার জন্য একটি পাত্রে ২ কাপ পানি ও ১ কাপ চিনি নিয়ে চুলায় মাঝারি আঁচে জ্বাল দিতে হবে। সিরার পানি ১/২ (অর্ধেক) কাপ শুকিয়ে গেলে সিরা নামিয়ে রাখতে হবে।

লালমোহন তৈরীতে ময়ানের(সবগুলো উপকরন একসাথে মেশানো) জন্য ময়দা, বেকিং পাউডার, গুড়া দুধ একসাথে চালুনীতে চেলে নিন, ফলে এর ভিতর কোন প্রকার দাঁনা থাকলে তা পৃথক করা যাবে। অন্য একটি পাত্রে ১টি ডিম ফেটে নিন, তার মধ্যে ১ চা-চামচ চিনি, ২ চা-চামচ তেল, ১ চা-চামচ পানি দিয়ে ভালোকরে ফেটে নিন।

এবার এর মধ্যে ময়দা, বেকিং পাউডার, গুড়া দুধ এক সাথে ময়ান করুন। ময়ান হয়ে গেলে খুব ছোট ছোট করে (প্রায় মার্বেল এর সাইজে কিংবা তার চাইতে হালকা বড়) গোল বলের মতো বানাতে হবে।

ভাঁজার জন্য পরিমান মতো তেল গরম করতে হবে। মনে রাখবেন অবশ্যই ডুবো তেলে ভাঁজতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে মাঝারি আঁচে ২ মিনিটের মধ্যে ছোট ছোট গোল বল গুলো লাল করে ভেজে তুলতে হবে এবং সাথে সাথে গরম সিরার মধ্যে রাখতে হবে। তারপর ২ মিনিটের জন্য চুলায় বলক দিন। তারপর নামিয়ে রাখুন এবং ৮ ঘন্টা সিরায় ভিজিয়ে রাখুন, দেখবেন সেই ছোট ছোট বল গুলো বেশ ফুলে টসটস করছে। ব্যস তৈরী হয়ে গেলো আপনার লালমোহন। এবার একটি পাত্রে লালমোহন গুলো সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

রেসিপিঃ কলি

ফেসবুক আইডি থেকে মন্তব্য করতে পারেন

টি মন্তব্য

10 comments

  1. পোষ্টটি ভালো লেগেছে, ছেষ্টা করে দেখি বানাতে পারি কিনা।

  2. ধন্যবাদ এই রেসিপি টার জন্য

  3. খাইেতে চাইলে আইতে পার। টপাটাপ ২,১ টা নাও আর খাও,আর বল আহ কি ম………………….জা পাইলাম।

  4. ঘরে শুধু মিষ্টি কেন সব রান্নাই মজার হয়. তাই সবাইকে ঘরে বসে মিষ্টি জাতীয় বা অন্যান্য খাবার তৈরী করে খেতে হবে. আর তা হবে স্বাস্থকর.

  5. মিষ্টিগুলো যা সুন্দর না আমার খেতে খুব ইচ্ছে করছে. যক আজ বাসায় গিয়ে চেষ্টা করবো. তৈরী সিস্টেম টা ভাল.

  6. বাহিরে যেখানেই যাবেন শুধু ভেজাল আর ভেজাল, এই ভেজাল থেকে বাচতে আপনি ঘরে তৈরী খাবার খেতে পারেন।

  7. সুন্দর একটি রেসিপির জন্য ধ্যবাদ ।

  8. যারা মিষ্টি পছন্দ করে তাদের খুব ভাল লাগবে।

  9. যাদের ডাইবোটস আছে, তারা দয়া করে খাবেননা।

  10. দয়া করে মিষ্টি খাওয়ার সময় নিজের সাবধানতা বজায় রাখবেন। ধন্যবাদ।।