মূল পাতা / সাক্ষাতকার / তরুণদের দিয়েই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে

তরুণদের দিয়েই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে

imagesসংগীতজীবনের ৫০ বছর পূর্ণ করতে চলেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন গায়িকা রুনা লায়লা। আলাপন তাঁর সঙ্গে, সাক্ষাৎকার নিয়েছেন মনজুর কাদের।

ক্যারিয়ারে বহু সাফল্য আপনি পেয়েছেন। বহু চড়াই-উতরাইও পাড়ি দিয়েছেন। নিজের জীবনকে আপনি কীভাবে দেখেন?
এই জীবনে অনেক মানুষের ভালোবাসা ও সম্মান পেয়েছি। এমন একটি জীবন উপহার দেওয়ার জন্য আল্লাহর কাছে শুকরিয়া। আমার শ্রোতা, শুভাকাঙ্ক্ষী ও ভক্তদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। কারণ, তাঁরা এখনো আমার গান শোনেন।

আজ আপনার জন্মদিন, কীভাবে কাটাবেন?
আমাদের পরিবারের ঘনিষ্ঠজনেরাই মিলে জন্মদিনটা কাটাই। সবাই একসঙ্গে খাওয়াদাওয়া করি। আড্ডা দিই। এবারেরটিও তার ব্যতিক্রম হবে না।
বহু রকমের গানে শ্রোতারা আপনাকে পেয়েছেন। আপনি নিজেকে সবচেয়ে বেশি খুঁজে পান কোন ধরনের গানে?

আমি সাধারণত মেলোডিয়াস ও শাস্ত্রীয় গানে বেশি আনন্দ পাই। ‘স্যাড-রোমান্টিক’ গানও আমার দারুণ ভালো লাগে।
কোন সময়টাকে বাংলা গানের সোনালি সময় বলে আপনার মনে হয়?
এটা নির্দিষ্ট করে বলা মুশকিল। সবচেয়ে বেশি ভালো বোধ হয় ষাট ও সত্তরের দশকটাই ছিল।
নতুন গায়ক-গায়িকাদের মধ্যে কাদের সম্ভাবনাময় মনে হয় আপনার?
আমি টেলিভিশন দেখার খুব একটা সময় পাই না। হঠাৎ করে টিভি চ্যানেল খুললেই দু-একজনের গান শুনি, দেখি তারা ভালোই গাইছে। ওদের চেষ্টা আছে, আগ্রহ আছে। সংগীত প্রতিযোগিতার বিচারকাজ করতে গিয়ে বেশ কজন নতুন শিল্পী আমরা পেয়েছি। এদের মধ্যে ঝিলিক, কোনাল ও ইমরানের কথা খুব বেশি মনে পড়ছে।

সংগীতজীবনে খ্যাতির কিছু বিড়ম্বনা নিশ্চয় আপনাকে সইতেও হয়েছে। তেমন একটি গল্প কি বলবেন?
বিড়ম্বনা আমাকে তেমন একটা সইতে হয়নি। তবে ভক্ত-শ্রোতাদের ভালোবাসাটা যখন তাঁদের জীবনের ওপর দিয়ে যায়, তখন কিছুটা ভয় লাগে। অনেক বছর আগে ভারতের বিহারের কাছাকাছি একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে গিয়েছিলাম। তখন ছিল খুব শীত। শো শেষে একটি ছেলে ফুল নিয়ে দেখা করতে চেয়েছিল। তাকে পরদিন দেখা করার জন্য বলা হয়। সকালবেলা আমি জানতে পারলাম, তীব্র শীতের মধ্যে ছেলেটি সারা রাত বাইরে অপেক্ষা করছিল। বিষয়টি জানার পর খুব খারাপ লেগেছিল। ভক্তদের উদ্দেশে বলতে চাই, আপনারা আমাদের যেমন ভালোবাসেন, ঠিক তেমনি নিজের জীবনটাকেও ভালোবাসবেন।

বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্ম এবং বাংলা গান নিয়ে কোনো স্বপ্ন কি আপনার আছে?
বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্ম নিয়ে আমি অনেক আশাবাদী। তরুণদের দিয়েই বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। স্বপ্ন দেখছি, বাংলা গানের এখনকার যে অবস্থা, তার উন্নতি হবেই।

লেখাটি ভাললাগলে কিংবা উপকারে আসলে শেয়ার করে অপরকে জানান।

ফেসবুক আইডি থেকে মন্তব্য করতে পারেন

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।